বিশেষ খবর

শেকৃবি’র ড. সাইফুল ইসলাম মোস্ট ভ্যালুয়েবল পারসন পুরস্কারে ভূষিত

ক্যাম্পাস ডেস্ক শিক্ষা সংবাদ

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন তরুণ বিজ্ঞানী শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (শেকৃবি) এর মেডিসিন এন্ড পাবলিক হেলথ বিভাগের চেয়ারম্যান ও সহযোগী অধ্যাপক ড. কে বি এম সাইফুল ইসলাম বাংলাদেশে প্রাণিচিকিৎসা শিক্ষায় অনবদ্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বাংলাদেশ লাইভস্টক সোসাইটি কর্তৃক ‘মোস্ট ভ্যালুয়েবল পারসন অফ দ্য ইয়ার ফর লাইভস্টক ডেভেলপমেন্ট (এডুকেশন)-২০১৭’ এ ভূষিত হয়েছেন।
সম্প্রতি রাজশাহী মেডিকেল কলেজের ডা. কাইছার রহমান চৌধুরী অডিটোরিয়ামে বাংলাদেশ লাইভস্টক সোসাইটি কর্তৃক ‘সকলের জন্য আমিষ’ প্রতিপাদ্য বিষয়ে আয়োজিত ‘৩য় লাইভস্টক অ্যাওয়ার্ড ও সেমিনার’ এবং ‘লাইভস্টক ও পোল্ট্রি মেলা-২০১৭’ এর প্রধান অতিথি মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, এমপি উক্ত পুরস্কার প্রদান করেন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. মোঃ আইনুল হক, বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইন্সটিটিউটের মহাপরিচালক ড. তালুকদার নুরুন্নাহার, বাংলাদেশ ভেটেরিনারি কাউন্সিলের রেজিস্ট্রার ডা. মোঃ এমরান হোসেন খান, বাংলাদেশ ভেটেরিনারি এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ড. মোঃ বেলাল হোসেন, এসিআই, এগ্রিবিজনেস এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও ড. এফ, এইচ, আনছারী, রেনাটা লিমিটেডের এনিমেল হেলথ ডিভিসনের প্রধান মোঃ সিরাজুল হকসহ বাংলাদেশ লাইভস্টক সোসাইটির সভাপতি প্রফেসর ড. মোঃ জালাল উদ্দিন সরদার এবং সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক ড. মোঃ হেমায়েতুল ইসলাম আরিফ।
উল্লেখ্য যে, প্রাণি চিকিৎসা, শিক্ষা ও গবেষণায় বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ড. কে বি এম সাইফুল ইসলাম এ পর্যন্ত এগার বার বিভিন্ন আন্তর্জাতিক পূরস্কার, স্বীকৃতি ও বৃত্তি অর্জন করার বিরল গৌরব অর্জন করেছেন। তিনি জুন ২০১৭ এ ‘ভিজিটিং স্কলার’ হিসেবে বিশ্বের অন্যতম প্রাচীন প্রাণিচিকিৎসা শিক্ষা প্রদানকারী বিশ্ববিদ্যালয় ফ্রান্সের ন্যাশনাল ভেটেরিনারি স্কুল অফ এলফোর্ট (এনভা) এর বিভিন্ন ল্যাব পরিদর্শন ও বৈজ্ঞানিক সভায় অংশগ্রহণ করে এনভা’র সাথে শেকৃবি’র শিক্ষা ও গবেষণা উন্নয়নের সম্ভাব্য বিভিন্ন দিক উন্মোচিত করেন। এছাড়া তিনি ২০১৫ সালে থাইল্যান্ডে সাসটেইনেবল এনিম্যাল এগ্রিকালচার ফর ডেভেলপিং কান্ট্রিজ কর্তৃক এসএএডিসি-২০১৫ ইয়াং সায়েনটিস্ট এওয়ার্ড, ২০১৪ সালে ইঞ্জিনিয়ারিং ইনফরমেশন ইনস্টিটিউট, সায়েন্টিফিক রিসার্চ এবং ওপেন এক্সেস লাইব্রেরির যৌথ উদ্যোগে প্রদত্ত ইয়ং রিসার্চার অ্যাওয়ার্ড-২০১৪, কানাডার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন অফ মাইক্রোবায়োলজিক্যাল সোসাইটি (আইইউএমএস) প্রদত্ত ‘ট্রাভেল গ্রান্ট-২০১৪ এবং ২০১১ সালে জাপানে এশিয়ান ইয়ং ল্যাব সাইন্টিস্ট অ্যাওয়ার্ড-২০১১ এ ভূষিত হন। পাশাপাশি তিনি বাংলাদেশের একমাত্র ভেটেরিনারিয়ান হিসেবে পরপর তিন বার ২০১৫ সালে ভিয়েতনাম ও ফিলিপিনসে এবং ২০১৬ সালে মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত আর্ন্তজাতিক সম্মেলনে ‘কি ওপিনিয়ন লিডার’ এর স্বীকৃতি অর্জন এবং দেশের প্রতিনিধিত্ব করেন। এর আগে তিনি ২০০৬ সালে ডেনমার্ক সরকারের ড্যানিডা ফেলোশিপ এবং ২০০৬ ও ২০০৮ সালে জাপান সরকার প্রদত্ত মনবুকাগাকুশো বৃত্তি লাভ করেন।
তিনি জাপান সরকারের মনবুকাগাকুশো বৃত্তি নিয়ে হোক্কাইডো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বায়োসিস্টেম সাস্টেইনাবিলিটি (মাইক্রোবায়োলজি) তে ২০০৮ সালে এমএস এবং ২০১১ সালে পি এইচ ডি ডিগ্রি অর্জন করেন। এর আগে তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০০১ সালে ১ম শ্রেণিতে ১ম স্থান অধিকার করে ডক্টর অফ ভেটেরিনারি মেডিসিন (ডিভিএম) ডিগ্রি অর্জন করেন এবং মেধা পূরস্কার (স্বর্ণপদক) এ ভূষিত হন। পরবর্তীতে ২০০৫ সালে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিস্টিংশনসহ ১ম শ্রেণিতে এমএস ইন মেডিসিন ডিগ্রি অর্জন করেন। এছাড়াও তিনি ২০০৬ সালে ডেনমার্কের দ্য রয়্যাল ভেটেরিনারি এন্ড এগ্রিকালচারাল বিশ্ববিদ্যালয়ের এবং ২০১৬ সালে ন্যাশনাল ভেটেরিনারি স্কুল অফ প্যারিস, ফ্রান্স এর পোস্ট গ্রাজুয়েট ডিপ্লোমা কৃতিত্বের সাথে সম্পন্ন করেন।


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ