বিশেষ খবর

এইচএসসি ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা পেছাতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে ইসি’র চিঠি

ক্যাম্পাস ডেস্ক শিক্ষা সংবাদ

আগামী ২৮ এপ্রিল অনুষ্ঠিতব্য তিন সিটির নির্বাচন  কেন্দ্র করে এইচএসসি ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা পেছানোর জন্য শিক্ষামন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ২৬ এপ্রিল থেকে ২৯ এপ্রিলের মধ্যে যেসব পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা, তা পেছানোর জন্য চিঠিতে বলা হয়েছে। ইসি সচিবালয়ের উপসচিব শামসুল আলম এ তথ্য জানান।
শামসুল আলম বলেন, ‘আগামী ২৮ এপ্রিল অনুষ্ঠেয় তিন সিটি করপোরেশন নির্বাচনের কারণে পরীক্ষার্থীদের যাতে কোনো সমস্যা সৃষ্টি না হয়,  সে জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে এ চিঠি দেয়া হয়েছে।’
পরীক্ষা পেছানোর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘নির্বাচনে ভোট গ্রহণের জন্য স্কুল-কলেজেগুলোকে কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা হয়। এতে শ্রেণিকক্ষ অগোছালো থাকে। তাই ভোটের পরের দিন পরীক্ষা থাকলে পরীক্ষার্থীদের জন্য সমস্যা হতে পারে। এ ছাড়া, ভোটের আগে কমপক্ষে দু’দিন শ্রেণিকক্ষ খালি লাগবে। এ জন্য ২৬ থেকে ২৯ এপ্রিলের মধ্যে অনুষ্ঠিতব্য সব পাবলিক পরীক্ষা স্থগিত করার জন্য বলা হয়েছে।
উল্লেখ্য, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষের রুটিন অনুযায়ী ২৯ এপ্রিল ২৬টি বিষয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।
ঢাকার মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের প্রকাশিত পরীক্ষাসূচি অনুযায়ী ২৬ এপ্রিলে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে ৬টি বিষয়ের পরীক্ষা। এর মধ্যে আছে পৌরনীতি ও সুশাসন ২য় পত্র, পৌরনীতি ২য় পত্র, জীববিজ্ঞান (তত্ত্বীয়) ২য় পত্র, ব্যবসায় উদ্যোগ ও ব্যবহারিক ব্যবস্থাপনা ২য় পত্র, ফিনান্স-ব্যাংকিং ও বীমা ২য় পত্র, ইংরেজি শর্টহ্যান্ড (তত্ত্বীয়) ২য় পত্রের পরীক্ষা। ২৮ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে মনোবিজ্ঞান (তত্ত্বীয়) ১ম পত্র এবং আর ৩০ এপ্রিল হবে মনোবিজ্ঞান (তত্ত্বীয়) ২য় পত্র পরীক্ষা।


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ