বিশেষ খবর

মানসম্মত উচ্চশিক্ষা নিশ্চিতে অ্যাক্রিডিটেশন কাউন্সিল আইন -শিক্ষামন্ত্রী

ক্যাম্পাস ডেস্ক সংবাদ
img

মানসম্মত উচ্চশিক্ষা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ‘অ্যাক্রিডিটেশন কাউন্সিল আইন’ প্রণয়নের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। তিনি বলেন, এ আইন কার্যকর হলে উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহের মধ্যে একটি সুস্থ প্রতিযোগিতা সৃষ্টি হবে। সবাই নিজেদের অবস্থান আরও উন্নত করতে সচেষ্ট হবে।
শিক্ষামন্ত্রী ৩ জানুয়ারি সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে অ্যাক্রিডিটেশন কাউন্সিল আইনের ওপর আয়োজিত সেমিনারে এ কথা বলেন।
বর্তমান বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে বিশ্বমানের শিক্ষা প্রদান এবং বিশ্বমানের গ্রাজুয়েট তৈরি খুবই জরুরি উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের উদ্দেশ্য হচ্ছে গুণগত মানসম্পন্ন শিক্ষা এবং গ্রাজুয়েট তৈরি করা। এ কারণে উচ্চশিক্ষার জন্য এক্রিডিটেশন কাউন্সিল গঠন আজ সময়ের দাবি।
সেমিনারে প্রস্তাবিত অ্যাক্রিডিটেশন কাউন্সিল আইনের ওপর মতামত দিয়ে প্রফেসর জামিলুর রেজা চৌধুরী, প্রফেসর এমাজউদ্দীন আহমদ, ড. ফরাসউদ্দীনসহ দেশবরেণ্য শিক্ষাবিদরা বক্তব্য রাখেন।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের পাশাপাশি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সমূহ যাতে নিয়মনীতির মধ্যে থেকে সুশৃঙ্খলভাবে মানসম্মত উচ্চশিক্ষা প্রদানে ভূমিকা রাখতে পারে, সে লক্ষ্যে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন-২০১০ প্রণয়ন করা হয়েছে।
এতে সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান। এসময় শিক্ষাসচিব মোঃ সোহরাব হোসাইন উপস্থিত ছিলেন। সেমিনারে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, পেশাজীবী সমিতির প্রতিনিধি এবং বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোক্তা প্রতিনিধিরা মতামত দেন।
সবার মতামতের ভিত্তিতে অ্যাক্রিডিটেশন কাউন্সিল আইন করা হবে বলে শিক্ষামন্ত্রী জানান। ইউজিসি চেয়ারম্যান জানান, দেশে উচ্চশিক্ষায় নীরব বিপ্লব ঘটেছে। উচ্চশিক্ষা স্তরে ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা এখন ৩১ লাখ। গুণগত মানসম্পন্ন গ্রাজুয়েট তৈরির ক্ষেত্রে উচ্চশিক্ষার গুণগত মান নিশ্চিতকরণে আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন অ্যাক্রিডিটেশন কাউন্সিল গঠন খুবই জরুরি।


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ