বিশেষ খবর

প্রেমের টানে প্রাসাদ ছাড়ছেন জাপানের রাজকুমারী

ক্যাম্পাস ডেস্ক ব্যতিক্রমী সংবাদ

প্রেমের টানে রাজপ্রাসাদের বিলাস ছেড়ে আমজনতার স্রোতে ভেসে ছোট্ট কুঁড়েতে যেতেই মনস্থির করেছেন জাপানের রাজকুমারী মাকো। বিয়ে করতে চলেছেন এক সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারের ছেলেকে।
পাত্র কেই কোমুরো রাজকুমারী মাকোর কলেজ জীবনের একসময়কার সহপাঠী এবং বহু দিনের প্রেমিকও।
কোমুরোকে বিয়ে করার ঘোষণা দিয়ে মাকো হইচই ফেলে দিয়েছেন পুরো জাপানজুড়ে। প্রেমের টানে চিরদিনের জন্য প্রাসাদ ছেড়ে রাজকুমারী চলে যাবেন সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারে, পরিণত হবেন সাধারণ নাগরিকে- এ বিষয়টি অনেকেই মেনে নিতে পারছেন না। ফলে বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক ক্রমেই বাড়ছে। কিন্তু জাপানের বর্তমান সম্রাট আকিহিতোর নাতনি মাকো পাকা সিদ্ধান্তই নিয়েছেন। আকিহিতোর (৮৩) চার নাতি-নাতনির মধ্যে মাকো সবার বড়। বাকি দুই জন নাতনি ও একজন নাতি।
আকিহিতো যেমন রাজদায়িত্ব আর পালন না করার পাকা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন, ঠিক তেমনিই রাজকুমারী মাকোও তার বিয়ের পাকা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বয়সের কারণে রাজ দায়িত্ব ঠিকঠাকভাবে পালন করা কঠিন হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থেকে গত বছর আগস্টে অবসরে যাওয়ার ইচ্ছার কথা জানান আকিহিতো। জাপানের রাজ পরিবারের গত দুই শতাব্দীর ইতিহাসে যা প্রথম।
মাকোও তেমনই ঠিক করেছেন, বাকি জীবনটা তিনি আর রাজপ্রাসাদের বিলাসে ডুবে থাকবেন না। প্রাসাদ ছেড়ে উঠবেন বরের কুঁড়েঘরেই। রাজবংশের বাইরে সাধারণ পরিবারের কাউকে বিয়ে করলে তাকে রাজপ্রাসাদের সবকিছু এমনকি সম্পত্তির অংশও ছেড়ে দিতে হবে। এটিই জাপানের রাজবংশের নিয়ম। জাপানের সংবিধান অনুযায়ী, রাজপরিবারের শুধুমাত্র পুরুষ সদস্যরাই সিংহাসনের উত্তরাধিকার হন। যদিও তরুণ প্রজন্মের একটি অংশ এখন বলছে, রাজদ- শুধুই রাজবংশের পুরুষদের হাতে নয়, নারীদের হাতেও যাওয়া উচিত।
কিন্তু রাজবংশের ক্ষমতার পরম্পরা নারীদের ওপরও বর্তাতে পারে কি না, সে ব্যাপারে এখনও কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি জাপান সরকার। ওদিকে, সম্রাট আকিহিতো অবসরে গেলে তার আসনে কে বসবেন, তাও এখনও চূড়ান্ত হয়নি। এমন সময়ে মাকোর বিয়ে করে রাজপরিবার ছাড়ার সম্ভাবনায় রাজপরিবার আরও ছোট হয়ে আসার শঙ্কা তৈরি হয়েছে।
বর্তমানে রাজপরিবারে সিংহাসনের উত্তরাধিকার হতে পারবেন এমন মাত্র চারজন পুরুষ জীবিত রয়েছেন। তাদের দুইজন হলেন, রাজা আকিহিতোর মাঝ বয়সের দুই ছেলে। যাদের স্ত্রীদের বয়সও ৫০ পেরিয়ে গেছে। এছাড়া আছেন আকিহিতোর অশীতিপর ভাই এবং আকিহিতোর ছোট ছেলের ১০ বছর বসয়ী ছেলে প্রিন্স হিসাহিতো। জাপান জুড়ে জন্মহারের নিম্নগতি রাজপরিবারেও প্রভাব ফেলেছে। যে কারণে প্রিন্স হিসাহিতোর পর জাপানের রাজপরিবারের ধারা থেমে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন অনেকেই।
কিয়ো ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক হিদেহিকো বলেন, বর্তমান ব্যবস্থায়, জাপানের রাজপরিবারের জন্য হয়ত প্রিন্স হিসাহিতোই একমাত্র উত্তরাধিকারী হিসেবে থেকে যাবেন। যে কারণে অনেকে শুধুমাত্র পুরুষ সদস্যদের উত্তরাধিকার করার আইন পুনর্বিবেচনা করা বা বিয়ের পরও নারীদের রাজপরিবারের সদস্য থাকার অনুমতি দেওয়ার বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণের কথা বলছেন।
সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে চিফ কেবিনেট সেক্রেটারি ইয়োশিহিদে সুগা বলেন, রাজপরিবারের উত্তরাধিকার নিশ্চিত করতে বর্তমান ব্যবস্থা পরিবর্তনে কোনও পদক্ষেপ নেয়ার সম্ভাবনা এখন পর্যন্ত নেই।


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ