বিশেষ খবর

ডাঃ আলমগীর মতির গবেষণা ॥ নাভি ম্যাসাজ থেরাপি

ক্যাম্পাস ডেস্ক স্বাষ্থ্য

নাভির আকারঃ ব্যক্তির প্রকার
নাভির আকারে ব্যক্তির অনেক কিছুই প্রকাশ করে, যেমন-
গোলাকার নাভিঃ আপনি আস্থাবান মানুষ। আপনি সবসময় সবকিছুতে ভাল দিকটা দেখেন। যদিও কিছু কিছু সময় ভাল কাজে ব্যর্থ হন।
বড়ঃ যাদের নাভি গোলাকার ও গভীর তারা সাধারণত ভাগ্যবান। এ আকৃতির নাভির লোক নম্র ও ভদ্র হয়। জীবনে শুরুর দিকে আপনি অকৃতকার্য হবেন। কিন্তু তাতে ধৈর্যহারা হবেন না। কারণ যখন বয়সে পরিপূর্ণ হবেন তখন সফলতার সৌভাগ্য আপনাকে ধরা দিবে।
ভাসা ভাসাঃ এ প্রকৃতির নাভির ব্যক্তি চিন্তা ও কর্মে অত্যন্ত দুর্বল ও নেতিবাচক হয়। এ অভ্যাসের কারণে কোন কাজ সমাপ্ত করতে পারে না। ফলে আপনুার ঊর্ধ্বতন ব্যক্তি আপনার উপর বিরক্ত হন। ইতিবাচক হওয়ার শিক্ষা নিন ও সবকিছুতে ভাল করার চেষ্টা করুন।
বাইরের দিকে প্রসারিতঃ এ আকৃতির নাভির ব্যক্তি জেদি হয়। নিজেকে মনোযোগের কেন্দ্রবিন্দুতে রাখতে ভালবাসেন। সতর্ক থাকুন, কারণ অন্যেরা আপনাকে সহজেই নষ্ট করতে পারে।
ঊর্ধ্বমুখীঃ এ ধরনের নাভির ব্যক্তি হাসিখুশি ও আনন্দ প্রিয় হয়। নিজেকে মানুষের সাথে সম্পর্ক রেখে জীবন যাপন করতে চায়। জীবনে সফলতা পেলেও আশ্চর্য হন না।
নিম্নমুখীঃ এ প্রকৃতির ব্যক্তিরা নিরাসক্ত, কোলাহলপ্রিয় ও ক্ষীণশক্তির অধিকারী। অন্যের কাজকে বাধাগ্রস্ত করার জন্য পিছন থেকে কাজ করার প্রবণতা থাকে। এ অভ্যাস ত্যাগ করুন। নইলে নিজেই অপসারিত হয়ে বাইরে চলে যাবেন।
ডিম্বাকারঃ এ প্রকৃতির নাভির ব্যক্তিরা অতিরিক্ত চিন্তা করে সিদ্ধান্ত নিতে গিয়ে সুযোগ হাতছাড়া করে ফেলেন। চিন্তাচেতনায় দূরদর্শী হোন এবং দ্রুত সিদ্ধান্ত নেন।
প্রসারিতঃ আপনি সহজে কিছু বিশ্বাস করেন না এবং আপনার আচরণে তা প্রকাশ পায়। সবকিছুতেই সতর্কতা ও সন্দেহ প্রবণতা রয়েছে। নিজেকে পাকা গোয়েন্দা মনে করেন, প্রকৃত পক্ষে তা নয়। ধৈর্য ধরুন এবং আপনার জীবনে অবশ্যই পরিবর্তন দেখতে পাবেন।
বৃত্তাকারঃ বৃত্তাকার নাভির ব্যক্তিরা প্রায়ই ভালবাসার মাধ্যমে কঠিন কাজকে সহজ করে প্রায়ই ফলাফল পেয়ে থাকেন। এ ধরনের নাভি অবশ্যই বিশেষ ভাল কিছু ধারণা প্রকাশ করে।
-আকারঃ এ ধরনের নাভির আকৃতির মানুষ পারিবারিক, আর্থিক, খ্যাতি, যশ ও সুস্থতায় পরিপূর্ণ থাকেন। আপনি নিশ্চিতভাবে সঠিকপথে দৃঢ়তার সাথে জীবন পরিচালিত করে থাকেন।
নাভি ম্যাসাজ থেরাপির নিয়ম
১। ঘড়ির কাঁটার দিকে ১০ বার সমস্ত তলপেটে হাতের মৃদু স্পর্শে ম্যাসাজ করুন।
২। উপর থেকে নাভি পর্যন্ত ১৫ বার হাতে ম্যাসাজ করুন।
৩। কশেরুকার (জওইঝ) উপরে ডানে বামে ১০ বার হাতে ম্যাসাজ করুন।
৩। কশেরুকার (জওইঝ) ভিতরে ডানে বামে ১০ বার হাতে ম্যাসাজ করুন।
৪। নাভির দুই পাশে উপর থেকে নিচ পর্যন্ত ১৫ বার হাতে ম্যাসাজ করুন।
নাভি ম্যাসাজের মাধ্যমে বিভিন্ন রোগের নিরাময় হয়
আমরা যদি খোলা চোখে লক্ষ্য করি ছেলেরা মায়ের কোলঘেঁষা বা মায়ের সাথে সবসময় দুষ্টুমি, চাওয়া, চাহিদা, আদব, সোহাগ পৃথিবীর সবকিছুতেই মায়ের সংস্পর্শ সবচেয়ে বেশি শান্তিদায়ক। আর মেয়েরা বাবার কাছে সব কিছুতে আগ্রহ প্রকাশ করে এবং বাবার সংস্পর্শ পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি আনন্দদায়ক হয়। বিষয়টি সবাই দেখে, অনুভব করে কিন্তু সঠিক ব্যাখ্যা কেউ দিতে পারবে না। এটি আসলে মহান আল্লাহ তায়ালার ঐশ্বরিক সৃষ্টির শান্তির পরশ। বিপরীত সব হালাল সম্পর্কের স্পর্শ সব সময় প্রশান্তিদায়ক হয়। রোগের উপশমে বড় ভুমিকা রাখে।
নাভিশ্বাস ম্যাসাজের মাধ্যমে প্রাণশক্তির সংযোগে শরীরের নিরাশয় শক্তি বৃদ্ধি পেয়ে আপনার মন ও শরীরের রোগসমূহের উপশমে সহজেই কাজ করে। নাভিশ্বাস ম্যাসাজ থেরাপি পৃথিবীতে সত্যি সত্যি মায়ের হাতের পরশের মত উষ্ণ, কোমল, আরামদায়ক ও আনন্দদায়ক।
স্বাস্থ্য ও সুস্থতার জন্য নাভি ম্যাসাজ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। যদিও মানুষ মনে করে ম্যাসাজ শুধু আরাম এবং বিলাসিতার জন্য। আসলে এটা প্রমাণিত যে নাভি ম্যাসাজ মানুষের স্বাস্থ্য ও সুস্থ থাকার জন্য বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। কারণ নাভি ম্যাসাজ বিষন্নতা কমিয়ে হজম ও কিডনির কাজ ত্বরান্বিত করে।
আধ্যাতিœক শক্তির (ঝঢ়রৎরঃঁধষ ভড়ৎপব) প্রধান উৎস স্থল হৃৎপিন্ড যার শুরু হয় নাভিমূল (ঘধাবষ চড়রহঃ) থেকে আর শেষ হয় হৃৎপিন্ডে। গবেষণায় দেখা যায় প্রায় ৭২০০ স্নায়ু নাভিমুলে একত্রিত হয়েছে। ৭২টি প্রধান এবং ৩টি গুরুত্বপূর্ণ স্নায়ু নাভি ম্যাসাজের মাধ্যমে ক্রিয়াশীল হয়ে ৭২০০ স্নায়ুকে কর্মশীল করে এবং দেহ ও মনে আধ্যাতিœক শক্তি সৃষ্টি করে প্রশান্তির পরশ দেয়। কারাতের জন্য নাভিমুল গুরুত্বপূর্ণ এবং বিভিন্ন আধ্যাতিœক অনুশীলন সম্পন্ন হয়।
নাভি ম্যাসাজ কোষ্ঠকাঠিন্য ও আইবিএস দূর করে
তলপেটের পাকস্থলীর এরিয়ায় ঘড়ির কাটার দিকে ম্যাসাজ দিবেন। এর ফলেশরীরের রক্ত প্রবাহ বেড়ে যায় প্রবাহিত রক্ত যখন ফিরে আসে তখন পেটের হজমশক্তি বাড়ায় ও কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। হারের মৃদু স্পর্শ হজমশক্তি বৃদ্ধি করে কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিরোধ করে। এটা শুধু মাংসপেশিকে নয় অন্ত্রকেও শিথিল করে। এনজাইম ও দেহরস খাদ্যের অবশিষ্টাংশকে নরম করে ভাল মলত্যাগের নিশ্চয়তা দেয়। নাভি ম্যাসাজের সময় খাঁটি অলিভ অয়েল ব্যবহার করলে শরীরের তাপমাত্রা ভাল থাকে, ত্বকের উপকার হয়, চর্বি পুড়ে নিঃশেষ হয় ও কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রনে থাকে।
নাভি ম্যাসাজ পেটের গ্যাস দূরীকরণে এক অনাবিল অনুভূতি
পাকস্থলীর প্রসারতা পেটে গ্যাস জমা হওয়ার লক্ষণ প্রকাশ করে। যখন এটি অস্বস্থিকর অবস্থার সৃষ্টি করে তখন এটি গ্যাসট্রাইটিস রোগ হিসেবে চিহ্নিত হয়। এছাড়া কোষ্ঠকাঠিন্য ও অর্জীণ রোগের সৃষ্টি করে। বেশি খাওয়া ও সঠিক হজম না হওয়াই কোষ্ঠকাঠিন্যের মূল কারণ। এক সপ্তাহ নাভি ম্যাসাজ করলে পেটফাঁপা ভাল হতে পারে।
নাভি ম্যাসাজ থেরাপি চর্বি নিঃশেষ করে ওজন কমায়
পেটের উপর নাভি ম্যাসাজ সাধারণত স্বাথ্য ভাল রাখার জন্য পাকস্থলীর সকল কাজে সহায়তা করে। শরীরের অতিরিক্ত চর্বি পুড়িয়ে দেহ থেকে অতিরিক্ত ওজন কমিয়ে দেয়। যখন রক্ত প্রবাহের গতি ও হাড়ের মৃদু স্পর্শ পাকস্থলীর এরিয়াতে হয় তখন পাকস্থলীর মেটাবলিজম ও হজমশক্তি বৃদ্ধি করে ভাল মলত্যাগের মাধ্যমে শরীরের চর্বি ও ওজন কমায়।
জীবনীশক্তির উন্নয়নে
জীবনীশক্তির উন্নয়নে প্রতিদিন ১ সিসি থেকে ১ ড্রাম হালকা গরম করে ও গোসল ও ঘুমানোর আগে ৫০ বার ঘড়ির কাঁটার দিকে ও বিপরীত দিকে নাভি ম্যাসাজ অত্যন্ত উপকারী।
মাংসপেশিকে মজবুত করে
নাভি ম্যাসাজের মাধ্যমে মাংসপেশিকে সুদৃঢ় ও মজবুত করে। ইহা ব্যাক পেইন দূর করে। যারা নাভি ম্যাসাজ নিয়মিত করে তাদের পেটের মাংসপেশি তরতাজা থাকে এবং বিষাক্ত পদার্থ দূর করে শরীরে রক্ত প্রবাহ ত্বরান্বিত করে।
মাসিকের ব্যথায় নাভি ম্যাসাজ
তলপেটের ম্যাসাজের নারীদের মাসিকের ব্যথা দূর করতে পারে। হালকা গরম লবঙ্গ তেল, দারুচিনি তেল তলপেটে দিয়ে হাত দিয়ে নাভির উপর হতে তলপেট পর্যন্ত হাত দিয়ে ম্যাসাজ করতে হবে। উপর থেকে নিচ পর্যন্ত হাতের মৃদু পরশে তলপেটের মাংসপেশি ও গ্রন্থিকে শিথিল করে মাসিক কালীন তলপেটের ব্যথা ও চাকাভাব দূর করে। তাড়াতাড়ি ব্যথা দূর করার জন্য ম্যাসাজের উপর হালকা গরম তোয়ালে বা হট ওয়াটার ব্যাগ দিয়ে রাখুন।
নাভির যত্ন
নাভিমুলকে সুস্থ ও শক্তিশালী রাখতে বাহ্যিকভাবে প্রতিদিন পরিষ্কার করতে হবে এবং শারীরিক অনুশীলন করতে হবে।
ব্যবহার
নাভি পাম্প যন্ত্রের রাবারের অংশটিকে আঙ্গুলের চাপ দিয়ে বায়ুশূন্য করে চিত হয়ে শোয়া ব্যক্তির নাভিতে স্থাপন করতে হবে। সঠিকভাবে স্থাপন হলে নাভি পাম্প যন্ত্রের বায়ুশূন্যতার জন্য নাভিতে কাজ শুরু হয় এবং হালকা এদিকে ওদিকে নড়াচড়া করতে হবে। সকালে খালি পেটে ১৫-২০ মিনিট নাভি পাম্প ব্যবহার করতে হবে।
-লেখকঃ মডার্ণ হারবাল গ্রুপের ফাউন্ডার


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ