বিশেষ খবর

মাড়ির রোগে নারীর ক্যান্সার হতে পারে

ক্যাম্পাস ডেস্ক স্বাষ্থ্য

দীর্ঘদিন ধরে যে নারীরা দাঁতের মাড়ির রোগে ভুগছে, তাদের বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সার, বিশেষত খাদ্যনালি ও স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা অন্যদের তুলনায় বেশি। গবেষণার ভিত্তিতে যুক্তরাষ্ট্রের চিকিৎসাবিদরা এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন।
আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন ফর ক্যান্সার রিসার্চের ‘ক্যান্সার এপিডেমিওলজি, বায়োমার্কার্স অ্যান্ড প্রিভেনশন’ শীর্ষক সাময়িকী ক্যান্সার বিষয়ক একটি নতুন গবেষণা নিবন্ধ প্রকাশ করেছে। এতে বলা হয়েছে, মাড়ির রোগের ইতিহাস আছে, এমন নারীদের যেকোনো ধরনের ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি ১৪ শতাংশ বেশি। মাড়ির রোগে আক্রান্ত নারীদের অন্য নারীদের তুলনায় খাদ্যনালির ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি তিন গুণ বেশি বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়। এ ছাড়া ফুসফুস, পিত্তথলি, মেলানোম ও স্তন ক্যান্সারের আশঙ্কার কথাও বলা হয়েছে।
এ গবেষণাকর্মের ঊর্ধ্বতন সদস্য স্টেট ইউনিভার্সিটি অব নিউ ইয়র্কের স্কুল অব পাবলিক হেলথের ডিন ওয়াকটাওয়াস্কি-ওয়েন্ডে বলেন, ‘নারীদের, বিশেষত বয়স্ক নারীদের কেন্দ্র করে জাতীয় গবেষণা এটাই প্রথম। ’ ১৯৯৯ থেকে ২০১৪ সালব্যাপী ৬৫ হাজার নারীকে গবেষণার আওতায় আনা হয়। ৫৪ থেকে ৮৬ বছর বয়সি এসব নারীর প্রত্যেকে পোস্ট মেনোপজাল পর্যায়ের এবং তাদের প্রত্যেককে গড়ে আট বছর করে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়।
গবেষক ওয়েন্ডে জানান, মাড়ির রোগ কী করে ক্যান্সারকে ত্বরান্বিত করে, সেটা জানতে আরো গবেষণা দরকার। এ রোগে আক্রান্তদের খাদ্যনালিতে ক্যান্সারের আশঙ্কা কেন বাড়ে, আপাতত সেই সম্পর্কে তাঁদের ধারণা, মুখ গহ্বরের সবচেয়ে কাছের অংশ হচ্ছে খাদ্যনালি।
ফলে মাড়ি থেকে সংশ্লিষ্ট জীবাণু সহজেই থুতুর মাধ্যমে খাদ্যনালিতে পৌঁছে যায় এবং ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়।


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ