বিশেষ খবর

নোবিপ্রবিতে আনন্দ শোভাযাত্রা

ক্যাম্পাস ডেস্ক সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ ইউনেস্কোর ‘বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্যের অন্তর্ভুক্ত হওয়ায় নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) আনন্দ শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সম্প্রতি নোবিপ্রবি পরিবারের সকল শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের অংশগ্রহণে এ শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামানের নেতৃত্বে শোভাযাত্রাটি প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে শুরু হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক ও গোলচত্ত্বর প্রদক্ষিণ করে প্রশাসনিক ভবনের সামনে এসে শেষ হয়।
শোভাযাত্রার শুরুতে উপাচার্য সংক্ষিপ্ত বক্তৃতা করেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭-ই মার্চের ভাষণকে সম্প্রতি ইউনেস্কো ‘বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্যে’র অন্তর্ভুক্ত করেছে। এর মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ আজ আর শুধু বাঙালির নয়, বিশ্বের অমূল্য সম্পদ। এই অমূল্য সম্পদকে চিরতরে ধ্বংস করতে চেয়েছিল পাকিস্তানি দোসর এই দেশীয় কুচক্রী মহল। টেলিভিশন, বেতার সব জায়গা থেকে এই ভাষণ ধ্বংস করা হয়েছিল। গণভবনে যখন ধ্বংস করা হচ্ছিল, সেখানে এক কর্মচারী জীবনবাজি রেখে এই ঐতিহাসিক ভাষণ লুকিয়ে রেখেছিলেন।
এসময় রেজিস্ট্রার, অনুষদসমূহের ডিন, ইনস্টিটিউট এর পরিচালকবৃন্দ, দপ্তরসমূহের পরিচালক, বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যানবৃন্দ, হলের প্রভোস্টবৃন্দ, প্রক্টর, শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ, বঙ্গবন্ধু পরিষদ ও স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের আহ্বায়কবৃন্দ, নোবিপ্রবি অফিসার্স এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ এবং ছাত্র-শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
প্রসঙ্গত, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণকে বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ প্রামাণ্য দলিল হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতিবিষয়ক সংস্থা ইউনেস্কো।


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ