বিশেষ খবর

শিক্ষার্থীদের শানিত করার দায়িত্ব শিক্ষকদের

-কুয়েট ভিসি

ক্যাম্পাস ডেস্ক সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়
img

খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) শিক্ষকদের অংশগ্রহণে দিনব্যাপী শিক্ষক প্রশিক্ষণ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৯ মে প্রশাসনিক ভবনের সভাকক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক আয়োজিত এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর। উদ্বোধনী বক্তৃতায় তিনি বলেন, ‘জাতির উন্নতির পেছনে শিক্ষিত হওয়ার হার গুরুত্বপূর্ণ, জাতীয় উন্নয়নের জন্য শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। আর একটি জাতিকে শিক্ষিত করতে হলে প্রয়োজন একজন দক্ষ ও ভালো শিক্ষকের। একজন ভালো শিক্ষক শিক্ষার্থীদের সঠিক জ্ঞান প্রদান এবং তাদের বুদ্ধিবৃত্তির উম্মেষ ঘটাতে পারেন। শিক্ষার্থীদের শানিত করে গড়ে তোলার দায়িত্ব শিক্ষকদের, তাই শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে শিক্ষকদেরকে উপযুক্ত করে গড়ে তুলতে হবে।
দিনব্যাপী এই কর্মসূচিতে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকের নৈতিক পেশাদারিত্ব, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের দায়িত্ব ও কর্তব্য, বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক পর্যায়ের একাডেমিক অর্ডিন্যান্স, পাঠদান পদ্ধতি, প্রশ্নপত্র প্রণয়ন, পরীক্ষণ, নিরীক্ষা, বিশ্ববিদ্যালয় আইন, বিধান, প্রবিধান এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ছুটির বিধান, সিআরটিএস-এর বিধিমালা, গবেষণা প্রকল্প ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনা করা হয়।
শিক্ষক প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে আলোচক হিসেবে অংশগ্রহণ করেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স ইউনিট (হেকেপ) এর কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স বিশেষজ্ঞ, অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য ও খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. সঞ্জয় কুমার অধিকারী, কুয়েট’র পুরকৌশল অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. শিবেন্দ্র শেখর শিকদার, তড়িৎ ও ইলেক্ট্রনিক কৌশল অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. নুরুন্নবী মোল্লা, যন্ত্রকৌশল অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. সৈয়দ আলী মোল্লা, পরিচালক, আইআইসিটি প্রফেসর ড. বাসুদেব চন্দ্র ঘোষ ও পরিচালক, আইডিএম প্রফেসর ড. মোঃ আবুল বাশার। কর্মসূচিতে কুয়েট’র বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকগণ অংশগ্রহণ করেন। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কুয়েটের রেজিস্ট্রার মোঃ আব্দুর রউফ, ডেপুটি রেজিস্ট্রার জি এম শহীদুল আলম প্রমুখ।
উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ১৫ মার্চ কুয়েটে প্রথম বার শিক্ষক প্রশিক্ষণ কর্মসূচির আয়োজন করা  হয়েছিল।


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ