বিশেষ খবর

জেলাভিত্তিক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তোলা হবে

-প্রধানমন্ত্রী

ক্যাম্পাস ডেস্ক শিক্ষা সংবাদ
img

‘আমরা অঞ্চল ও জেলা ভিত্তিক কৃষি গবেষণা, বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তোলার ক্ষেত্রে গুরুত্ব দিচ্ছি। জাপানে প্রথম সফরে গিয়ে দেখেছি তাদের কৃষিব্যবস্থা। জাপান প্রথমে কৃষিভিত্তিক দেশ ছিলো। সেখান থেকে তারা আজ এ পর্যায়ে এসেছে। তাদের কাজকর্ম অত্যন্ত পরিচ্ছন্ন, সুশৃঙ্খল। প্রযুক্তি ব্যবহারও লক্ষণীয়।’
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরকৃবি) ১৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
৯ মে তিনি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে পৌঁছান। এর আগে ক্যাম্পাসে পৌঁছে প্রথমেই বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল, ইলা মিত্র হল, সুফিয়া কামাল অডিটরিয়াম, শহীদ তাজউদ্দীন আহমেদ হল, ড. ওয়াজেদ মিয়া কেন্দ্রীয় গবেষণাগারসহ ১০টি স্থাপনা উদ্বোধন করেন।
পরে প্রধানমন্ত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম সুফিয়া কামাল অডিটরিয়ামে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন।
কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশাপাশি আমরা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করেছি। হাজী দানেশ এবং যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়কে কৃষি নিয়ে গবেষণার জন্য বিশেষ দায়িত্ব দেওয়া রয়েছে।
শিক্ষামন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আমাদের ছেলেমেয়েরা যেন কৃষিবিমুখ না হয়। তারা যেন মাঠে গিয়ে দেখে কীভাবে ফসল উৎপাদন হচ্ছে। প্রথম থেকেই কৃষি বিষয়ক পাঠ জরুরি।
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরকৃবি) প্রশংসা করে তিনি বলেন, এই প্রতিষ্ঠান ইতোমধ্যে গবেষণায় সফল হয়েছে। গবেষণার ফলে এখন ১২ মাসই সব ধরনের তরকারি পাওয়া যায়।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ মাহবুবুর রহমান। আলোচনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, বশেমুরকৃবি সিন্ডিকেট সদস্য জাহিদ আহসান রাসেল এমপি, কৃষিবিদ আবদুল মান্নান এমপি ও কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম এমপি।


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ