বিশেষ খবর

চলো, মৌসুমি ফল ও ভেজিটেবল খাই

ক্যাম্পাস ডেস্ক শিশু ক্যাম্পাস
img

 ॥ মাহীর হেলাল ॥
৮ম শ্রেণি, উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল


আমাদের দেশে ছয়টি ঋতু রয়েছে। প্রতিটি ঋতুতেই প্রকৃতির আলাদা রূপ দেখা যায় এবং প্রায় সব ঋতুতেই নানা রকম ফল পাওয়া যায়। তবে গ্রীষ্মকালে সবচেয়ে বেশি ফল পাওয়া যায়। এসময় আম, কাঁঠাল, লিচু, জাম, আনারস, পেয়ারা, তরমুজ, তাল ইত্যাদি নানারকম ফলে বাজার এমনকি রাস্তাঘাটও ভরে যায়। আবার শীতকালে ফল কম এবং সবজি উৎপাদন বেশি হয়। এই যে ঋতুভেদে ফলবৈচিত্র্য, এটি প্রাকৃতিক নিয়ম অনুযায়ী চলে। অর্থাৎ একেক ঋতুতে একেক রকম ফল হওয়ার পেছনে প্রাকৃতিক কারণ আছে। প্রতিটি ঋতুর প্রাকৃতিক বৈশিষ্ট্যের ওপর নির্ভর করে ফল উৎপাদন হয়। যে ঋতুতে মানুষের শরীরের জন্য যেই ফলের উপাদান প্রয়োজন, সে ঋতুতে সেই ফলই জন্মে -এটাই স্রষ্টার লীলা। কিন্তু আমরা অনেকেই এই Seasonal ফল খেতে চাই না; অনেকে বেছে বেছে ২/১ রকম ফল খাই। চোখের সামনেই এই ফল রেখে অন্য খাবার খাই। এর ফলে আমরা আমাদের শরীরের প্রয়োজনীয় পুষ্টি পাই না।
আমিও একসময় ফল খেতে চাইতাম না। কিন্তু বাবা-মা আমাকে ভালোভাবে বুঝিয়ে দিয়েছেন, ফল খেলে কী কী উপকার হয় এবং কীভাবে ফল খাওয়ার অভ্যাস করতে হবে। এই ব্যাপারে প্রিয় পাঠকের সাথে একটি ঘটনা Share করছি।
আমি আগে একটু-আধটু ফল খেলেও কাঁঠাল একদমই খেতে পারতাম না। খেতে গেলেই বমি এসে যেত। বাবা বললেন, প্রথমে কষ্ট করে হলেও একদিনে এক কোষ কাঁঠাল খেতে; এরপর দিনে ২টি এরপর ৩টি; ক্রমান্বয়ে অভ্যাস বাড়িয়ে দিনে অন্তত ৫ কোষ কাঁঠাল খেতে বললেন। এভাবে আমি আস্তে আস্তে কাঁঠাল খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলি। এখন কাঁঠাল খেতে আমার ভালোই লাগে। আমার বাবার অফিসেও অনেক স্টাফ এবং কোনো কোনো মেহমান কাঁঠাল খেতে না চাইলেও বাবা তাঁর কৌশল প্রয়োগ করে সবাইকে কাঁঠাল খাওয়ার অভ্যাস করিয়েছেন।
আমিও এভাবে আমার মধ্যে বিভিন্ন Seasonal ফল খাওয়ার অভ্যাস করেছি। এই অভ্যাসের কারণে আমি সুস্থ ও ভালো আছি। আম আমার খুব প্রিয় ফল, জাম খেতেও ভালো লাগে। বাজারের জুস না কিনে আমাদের বাসায় প্রায়ই কাঁচা বা পাকা আম কিংবা আনারসের জুস বানানো হয়। এসব ফলের জুসও আমার খুব ভালো লাগে। সামনে রোজা আসছে। এসময় ইফতারে নানা মৌসুমি ফলের জুস বানানো হবে আমাদের বাসায়, আর সারাদিন রোজা রাখার পর ঐ পুষ্টিকর জুসই হবে আমাদের ইফতারের অন্যতম উপাদান। আমরা মোটামুটি খেলেও আমার বাবা প্রচুর ফ্রুট জুস ও ভেজিটেবল, কাঁচা ছোলা, সেদ্ধ ভেজিটেবল দিয়ে ইফতার করেন। কোনো ভাঁজা-পোড়া খাবেনই না। প্রতিবছরই তাই দেখে আসছি। বন্ধুরা, তোমরাও বেশি করে ফল ও ভেজিটেবল খাওয়ার অভ্যাস কর এবং সুস্থ থাক।
লেখকের ওয়েবঃ  www.maheer.helal.net.bd
ই-মেইলঃ maheer7helal@gmail.com


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ