বিশেষ খবর

ব্রিটেনে পড়াশোনা করে কেরিয়ার

ক্যাম্পাস ডেস্ক ক্যারিয়ার গাইড
img

আগে বিলাত ফেরত বলতে বোঝাতো ইংল্যান্ড থেকে পাস করে আসা ব্যারিস্টার অথবা ডাক্তার। ভারতে মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের মক্কা ছিল অক্সফোর্ড কিংবা কেম্ব্রিজ অথবা লন্ডন স্কুল অব ইকনমিক্স। সে সময় উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশ যাত্রা বলতে বোঝাত ইংল্যান্ড যাত্রা। এখন ভারতীয় ছেলে মেয়েরা দলে দলে আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, সিঙ্গাপুর ও জার্মানীতে পড়তে যাচ্ছে। ডাক্তারি পড়ার জন্য ছুটছে রাশিয়া অথবা চিন। কিন্তু এখনো বনেদি উচ্চশিক্ষার কেন্দ্র হিসাবে ইংল্যান্ডের স্থান বেশ উপরে। তবে মুশকিল হচ্ছে অসাধারণ ভালো ছাত্র-ছাত্রী না হলে ইংল্যান্ডে পড়তে গেলে স্কলারশিপ পাওয়া যায় না। আবার অনেকে স্কলারশিপ নিয়ে পড়তে গিয়েও পিছিয়ে পড়ে খরচা না চালাতে পারার জন্য। তবে অনেকে একবার ভর্তি হয়ে গিয়ে পার্টটাইম চাকরি করে পড়াশোনা চালিয়ে নেয়। তাই যাঁরা ইংল্যান্ডের বনেদি ইউনিভার্সিটিগুলিতে পড়ার সুযোগ পাবেন, তাঁরা যেন সুযোগ মিস না করেন। ইংল্যান্ডে পড়াশোনার মান এখনও ভীষণ ভালো।
ব্রিটেনে আইন ও ডাক্তারি পড়ার জন্য ভারতীয় ছাত্রদের আগ্রহ এখনো আছে। ডাক্তারিতে Royal College of Physicians বা Royal College of Surgeon থেকে পাস করে (MRCP বা FRCS) হওয়া এখনও ডাক্তারি ছাত্রদের স্বপ্নের ডিগ্রি। এছাড়াও ব্রিটেনের ল্যাঙ্কাস্টার ও ম্যানচেস্টার ইউনিভার্সিটি, লন্ডন ইউনিভার্সিটি, ব্রিস্টল ইউনিভার্সিটি, কার্ডিফ ইউনিভার্সিটি, সেন্ট অ্যান্ড্রুজ ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব এডিনবরা, লন্ডন স্কুল অফ ইকনমিক্স, লন্ডন স্কুল অফ ডিজাইনগুলি বিদেশি ছাত্রদের চাহিদার তুঙ্গে থাকে। যাঁরা ব্রিটেনে পড়তে চান তাঁদের আগে IELTS পরীক্ষা দিতে হয়। ব্রিটিশ কাউন্সিলগুলি এই কোর্সগুলি পরিচালনা করে। এই সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য কলকাতার British Council –এ পাওয়া যাবে। ঠিকানা –
British Council Division
British Deputy High Commission
L&T Chambers, 1st Floor, 16 Camac Street
Kolkata – 700017
Tel – +91(0)33 2282 5370
Email: kolkataeducationuk

ছাত্ররা যদি সরাসরি ইংল্যান্ডের সাথে যোগাযোগ করতে চায়, তাহলে এই ঠিকানায় যোগাযোগ করতে পারে – Institute of Education
University of London
20 Bedford Way
London WC1HOAL
Tel- +44(0)2076126000
webiste : www.ioe.ac.uk
ব্রিটেনে যারা পোস্ট গ্রাজুয়েট কোর্স করতে চায়, তাদের দরকার ভারতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি ডিগ্রি। অধিকাংশ বিশ্ববিদ্যালয়ই চান অনার্সে প্রথম শ্রেণী অথবা উচ্চ দ্বিতীয় শ্রেণী আর IELTS-এ ভালো স্কোর। যারা MBA পড়তে চান তাদের GMAT এ ভালো স্কোর করতে হবে। PhD ছাত্রছাত্রীদের জন্যে পোস্ট গ্র্যাজুয়েটে ভাল ফল M.Phil ডিগ্রি ও সেইসঙ্গে M.Phil ডিগ্রির ফল ও রিসার্চ প্রোপোসাল পাঠাতে হয়। MBA পড়তে গেলে গ্রাজুয়েট হওয়ার পর ২-৩ বছরের কাজের অভিজ্ঞতা চাই। সেইসঙ্গে চাই IELTS ভালো স্কোর।
IELTS-এর পুরো নাম হলো International English Language Testing System. প্রার্থী ইংরেজী ভাষায় পড়তে লিখতে বা বলতে কতটা সক্ষম এই পরীক্ষাটি তাই যাচাই করে। পরীক্ষাটি ব্রিটিশ কাউন্সিল পরিচালনা করে। এই পরীক্ষা সংক্রান্ত ওয়েবসাইট-এ IELTS -এর যাবতীয় তথ্য পাওয়া যাবে। www.britishcouncil.org/india-exams-ielts
যারা ইঞ্জিনিয়ারিং, বিজ্ঞান, টেকনোলোজি নিয়ে ইংল্যান্ডে পোস্ট গ্র্যাজুয়েত করতে চায়, তাদের ATLAS সার্টিফিকেট নিতে হবে। ATLAS হলো Academic Technology Approval Scheme । এদের ওয়েবসাইট হলো – www.fco.gov.uk/atlas
ইংল্যান্ডের ভিসা সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য পাওয়া যাবে এই ওয়েবসাইটে – www.ukva.homeoffice.gov.uk


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ