বিশেষ খবর

ইউআইটিএস এর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

ক্যাম্পাস ডেস্ক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়
img

শিক্ষাঙ্গনে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস দমনে দৃঢ় অঙ্গীকার ব্যক্ত করে ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সেস (ইউআইটিএস) এর প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত হয়েছে। দিনব্যাপী বর্ণাঢ্য আয়োজনে আনন্দ-উল্লাসের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের প্রথম তথ্য প্রযুক্তি ভিত্তিক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ইউআইটিএস এর ১৩তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদ্যাপিত হলো। এ উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের বারিধারা ক্যাম্পাস মিলনায়তনে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর কেক কাটা ও অন্যান্য অনুষ্ঠানের পাশাপাশি ‘জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস দমনে শিক্ষার ভূমিকা’ শীর্ষক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। কোনো শিক্ষাঙ্গনে যাতে শিক্ষার পরিবেশ বিনষ্টকারী কোনো কর্মকান্ড সংগঠিত না হয় এ বিষয়ে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বনের জন্য আলোচনায় গুরুত্ব আরোপ করা হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোঃ আখতারুজ্জামান। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, শিক্ষাঙ্গনের সন্ত্রাস আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থাকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে। ইদানিং কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জঙ্গি ও সন্ত্রাসী তৎপরতা আমাদেরকে বিচলিত করে তুলেছে। যেকোনো মূল্যে এই অপতৎপরতার প্রতিরোধ করে সুশিক্ষার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের সঠিক পথে পরিচালিত করতে হবে। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) এর ইলেকট্রিক্যাল এ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের সম্মানিয় ডিন প্রখ্যাত কম্পিউটার বিজ্ঞানী অধ্যাপক ড. এম কায়কোবাদ।
অনুষ্ঠানের প্রধান আলোচক ইউআইটিএস এর প্রতিষ্ঠাতা এবং বোর্ড অব ট্রাস্টিজ ও পিএইচপি পরিবারের চেয়ারম্যান বিশিষ্ট শিল্পপতি আলহাজ্ব সুফী মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে ইউআইটিএস বিভিন্ন পেশাদারী শিক্ষায় হাজার হাজার শিক্ষার্থীকে এ পর্যন্ত জাতির উন্নয়নের সৈনিক হিসেবে তৈরি করার বিশেষ অবদান রাখতে সক্ষম হয়েছে।
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ কামরুল হাসান, স্কুল অব লিবারেল আর্টস অ্যান্ড সোস্যাল সায়েন্স এর ডিন ড. আরিফাতুল কিবরিয়া, পরিচালক রিসার্চ সেন্টার অধ্যাপক মুহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন খান, সকল বিভাগীয় প্রধান, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীগণ।


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ