বিশেষ খবর

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় নিজেরাই নিজেদের প্রতিদ্বন্দ্বী হবে

-ড. হোসেন জিল্লুর

ক্যাম্পাস ডেস্ক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়
img

সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ও অর্থনীতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান বলেছেন, ‘বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে এক যুগ পর তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হবে না। নিজেরাই নিজেদের প্রতিদ্বন্দ্বী হবে। এখন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলো বিষয়ভিত্তিক পড়ালেখায় কিছুটা এগিয়ে থাকলেও আস্থার জায়গায় এগিয়ে আছে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোই।’
ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটির ১২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ‘বাংলাদেশে উচ্চ শিক্ষা’-বিষয়ক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
ড. হোসেন জিল্লুর আরো বলেন, ‘বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে মানসম্মত শিক্ষার আকাঙ্খা সর্বজনীন পর্যায়ে পৌঁছেছে। যদি যৌক্তিক খরচ হয় তাহলে তা মানুষ দিতে চায়। তাই বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে মান, র‌্যাংকিং ও শিক্ষার্থীদের আগ্রহের জায়গা ধরে এগোতে হবে।’
২০০৩ সালের ২৯ এপ্রিল যাত্রা শুরু করে ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দিনব্যাপী ছিল বর্ণিল আয়োজন। বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ এনায়েত উল্লাহর সভাপতিত্বে সেমিনারে বক্তব্য দেন ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য আবুল কাশেম হায়দার, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুল হান্নান চৌধুরী প্রমুখ। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. আইনুন নিশাত এবং ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. আব্দুর রব।
ড. আইনুন নিশাত বলেন, ‘পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অনেক আগে যা টিউশন ফি ছিল এখনো তা-ই আছে। পুরোটাই ভর্তুকি দিচ্ছে সরকার। অথচ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের চেয়ে রাষ্ট্রকে বেশি সার্ভিস দিচ্ছে। তাই বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়েও রাষ্ট্রকে কিছু ভর্তুকি দিতে হবে। তবে উচ্চশিক্ষায় যে ব্যবসায়িক মনোবৃত্তি এসেছে সেটাও বন্ধ করতে হবে। শিক্ষার্থীদের সুযোগ-সুবিধা বাড়াতে হবে।’
ড. আব্দুর রব বলেন, ‘পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় সেরা শিক্ষার্থী নেয়। তারা নেয়ার পর বাকি শিক্ষার্থীদের আমরা নিই। ভালো ছাত্র নিয়ে ভালো নয়, খারাপ ছাত্র নিয়ে ভালো করাটাই হচ্ছে চ্যালেঞ্জ। ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি কোয়ালিটি এডুকেশনের মাধ্যমে সেই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করছে।’


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ