বিশেষ খবর

শিক্ষার মানোন্নয়নে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে

-শিক্ষামন্ত্রী

ক্যাম্পাস ডেস্ক শিক্ষা সংবাদ
img

শিক্ষার গুণগত মান উন্নয়নের মাধ্যমে ২০২১ সালের মধ্যে দেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। তিনি বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে সরকার কাজ করছে। এ পরিকল্পনায় ২০২১ সালের মধ্যে দেশ থেকে দারিদ্র্য দূর করা হবে। দেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে। এ লক্ষ্যে শিক্ষার সার্বিক মানোন্নয়নে সর্বাধিক গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। ‘পরবর্তী প্রজন্মের জন্য মানসম্মত শিক্ষা’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন।
রাজধানীর ব্র্যাক সেন্টারে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক ও ইনস্টিটিউট ফর ইনফরমেটিক্্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (আইআইডি) আয়োজিত এ সেমিনারে নুরুল ইসলাম নাহিদ আরো বলেন, নতুন প্রজন্মকে আধুনিক বাংলাদেশের নির্মাতা হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। সেই লক্ষ্য সামনে রেখে জাতীয় শিক্ষানীতি প্রণয়ন করা হয়েছে। প্রবর্তিত নতুন কারিকুলামের আঙ্গিকে আগামী প্রজন্মকে যোগ্য হিসেবে গড়ে তোলা হবে। ১০ লাখ শিক্ষককে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। শিক্ষকদের মধ্যে নারী-পুরুষের সমতার ক্ষেত্রে দেশ অনেক এগিয়েছে। প্রাথমিক শিক্ষকদের মধ্যে শতকরা ৫১ জন নারী। মাধ্যমিকে নারী শিক্ষক ৫৩ ভাগ। কোচিং ব্যবসা আর ভর্তি বাণিজ্যও ধীরে ধীরে কমিয়ে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে। 
উপস্থাপিত প্রবন্ধে বলা হয়, শিক্ষাক্ষেত্রে দুর্বল মনিটরিং, কর্মমুখী শিক্ষায় দক্ষতার অভাব রয়েছে। গত বাজেটে শিক্ষা খাতকে যে গুরুত্ব দেয়া হয়েছিল, এবার তা হয়নি। মুদ্রানীতিকে আমলে নিলে এবার দুই হাজার ৯২২ কোটি টাকা বেশি দেয়ার কথা, কিন্তু তা দেয়া হয়নি। ২০১৫-১৬ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে শিক্ষা খাতে জিডিপির ১ দশমিক ৮ ভাগ বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে। গত অর্থবছরে এই হার ছিল ২ দশমিক ২ ভাগ। সেই হিসাবে এবারের বাজেটে শিক্ষা খাতে ছয় হাজার ১৬২ কোটি টাকা কম বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। 


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ