বিশেষ খবর

প্রত্যেক জেলায় কালেক্টরেট স্কুল স্থাপনের প্রস্তাব ডিসিদের

ক্যাম্পাস ডেস্ক সংবাদ

সাধারণ বিষয়ে শিক্ষকের পাশাপাশি তথ্য ও যোগাযোগ (আইসিটি) বিষয়ের শিক্ষক স্বল্পতা পূরণ, মাল্টিমিডিয়া ক্লাস রুমে প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম সরবরাহ এবং অঞ্চলভেদে বিশেষায়িত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্থাপনের প্রস্তাব করেছেন দেশের জেলা প্রশাসকেরা (ডিসি)। এছাড়া প্রত্যেক জেলায় একটি করে কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজ স্থাপনেরও প্রস্তাব দিয়েছেন কয়েক জেলার প্রশাসক।
২৮ জুলাই রাজধানীর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে শুরু হওয়া জেলা প্রশাসক সম্মেলনের প্রথম দিনে শিক্ষা, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধিবেশনে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীরা বিভিন্ন পদক্ষেপের বিষয় তুলে ধরলে এসব তথ্য জানা যায়। জেলা প্রশাসক সম্মেলন উপলক্ষ্যে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে শিক্ষার মানোন্নয়নে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে বিভিন্ন প্রস্তাব পাঠিয়েছেন ডিসিরা। পাবনা, খুলনা, কুড়িগ্রাম, নীলফামারী, যশোর জেলা প্রশাসক প্রস্তাব দিয়েছেন-বিভিন্ন জেলায় স্থাপিত কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজ মানসম্মত শিক্ষা বিস্তারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। তবে প্রতিষ্ঠানগুলোর নিয়োগ, পরিচালনা কমিটির গঠন বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো নীতিমালা না থাকায় সব প্রতিষ্ঠানের মান একই রকম হচ্ছে না।
প্রত্যেক জেলায় একটি করে কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজ স্থাপন এবং তা পরিচালনায় অভিন্ন নীতিমালা প্রণয়নের আহ্বান জানিয়েছেন এই পাঁচ জেলার ডিসি। কৃষি প্রধান চাঁদপুর জেলায় ১৪ একর জমিতে অবস্থিত টেকনিক্যাল স্কুলের অব্যবহৃত জমিতে একটি টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ স্থাপনের প্রস্তাব করেছেন ওই জেলা প্রশাসক।
শিল্প প্রধান নারায়ণগঞ্জ জেলায় এখন পর্যন্ত সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগে কোনো আধুনিক শিল্প প্রশিক্ষণ কেন্দ্র গড়ে না ওঠায় দক্ষ জনবল তৈরিতে একটি আধুনিক কারিগরি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট স্থাপনের প্রস্তাব দিয়েছেন জেলার ডিসি। ‘বিষাদসিন্ধু’র রচয়িতা মীর মোশাররফ হোসেনের সমাধিস্থলে ওয়াক্ফ জমিতে তার নামে একটি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্যে বলেছেন রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক।
পঞ্চগড়, মাগুরা ও শরীয়তপুর জেলা প্রশাসক জানান, কোনো কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুমে প্রয়োজনীয় উপকরণ না থাকায় শিক্ষা কার্যক্রম কাঙ্খিত পর্যায়ে উন্নীত করা যাচ্ছে না। ফলে প্রয়োজনীয় উপকরণ সরবরাহ করারও প্রস্তাব করেন তারা। মুন্সিগঞ্জ জেলা প্রশাসক বলেছেন, সরকারি কলেজে আইসিটি বিষয় বাধ্যতামূলক হলেও শিক্ষকের পদ সৃজন হয়নি। প্রত্যেক সরকারি কলেজে আইসিটি শিক্ষকের পদ সৃজনের সুপারিশ করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। সরকারি বিদ্যালয়ে ভর্তির বিষয়ে বয়স নির্ধারণে শিক্ষা এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উদ্যাগে সমন্বিত নীতিমালা প্রণয়নের ঝালকাঠি জেলা প্রশাসকের প্রস্তাবনায় সায় দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।
চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকদের জন্য ৮৭টি পদ সৃজনের প্রস্তাব করেছেন। সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের পদ পূরণের প্রস্তাব দিয়েছেন নাটোর জেলা প্রশাসক। এবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের সনদপত্র এবং মেধা ও কোটাভিত্তিক বৃত্তি প্রদানের প্রস্তাব করেছেন রাজশাহী জেলা প্রশাসক। এতে সুপারিশ করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ