বিশেষ খবর

ঢাবিতে শিক্ষামন্ত্রী ॥ তথ্য-প্রযুক্তিভিত্তিক আধুনিক শিক্ষা সার্বজনীন করা হবে

ক্যাম্পাস ডেস্ক শিক্ষা সংবাদ
img

প্রযুক্তিভিত্তিক শিক্ষা সার্বজনীন করায় জোর দিয়ে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় শিক্ষার্থীদের বিশ্বমানের করে গড়ে তুলতে হবে।
২ সেপ্টেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে ‘ডিজিটাল এডুকেশন’ শীর্ষক দিনব্যাপী প্রথম আন্তর্জাতিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ বিভাগ ও ব্যাকবন ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগে এ সম্মেলন আয়োজন করা হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আবু ইউসুফের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর অধ্যাপক ড. আতিউর রহমান ও ঢাকায় নিযুক্ত জাপানি রাষ্ট্রদূত মাসাতু ওতানাবে।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে দক্ষ মানবসম্পদ হিসেবে প্রস্তুত হতে হবে শিক্ষার্থীদের। এজন্য একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় দেশে তথ্য-প্রযুক্তিভিত্তিক আধুনিক শিক্ষাকে সার্বজনীন করতে হবে। শিক্ষার কোয়ানটিটি বাড়লেও কোয়ালিটি বাড়েনি মন্তব্য করে তিনি বলেন, এবার মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করাই চ্যালেঞ্জ।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, সার্বিক পঠন-পাঠনে তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন ঘটাতে হবে। এ লক্ষ্যে ইতোমধ্যেই শিক্ষার প্রায় সব স্তরে ডিজিটাল উপাদান ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম, জাপানের অধ্যাপক ড. ওনেকুরা সিশিরো, অধ্যাপক তুশিয়াকি ইউশিদা, তথ্য-প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ তাগুনবি ওগিনো ও কানাকো সুজুকি আলাদা আলাদা প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন ব্যাকবনের প্রতিষ্ঠাতা মাহিন মতিন ও ডাটাসফটের সভাপতি মাহবুব জামান প্রমুখ।


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ