বিশেষ খবর

যে স্কুলে পড়ালেখা করেছেন সেখানে সহায়তা করুন -প্রধানমন্ত্রী

ক্যাম্পাস ডেস্ক শিক্ষা সংবাদ
img

স্কুলের শিক্ষার্থীদের মেধা বিকাশে দেশের প্রতিটি স্কুলে ডিজিটাল শ্রেণিকক্ষ প্রতিষ্ঠায় সরকারের পাশাপাশি সমাজের বিত্তবান ও প্রতিষ্ঠিতদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, একসময় যারা ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ কনসেপ্টের সমালোচনা করত, তারাই এখন এই ডিজিটালের সুফল বেশি করে ভোগ করছে।
প্রধানমন্ত্রী তাঁর তেজগাঁওয়ের কার্যালয়ে প্রাথমিক শিক্ষা কনটেন্ট ‘ইন্টারঅ্যাকটিভ মাল্টিমিডিয়া ডিজিটাল ভার্সনে রূপান্তর’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় প্রস্তুতকৃত ডিজিটাল শিক্ষা কনটেন্টের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে এসব কথা বলেন।
শেখ হাসিনা বলেন, যাঁরা বিত্তবান এবং সমাজে একটু প্রতিষ্ঠিত, তাঁরা নিজ নিজ স্কুলে অন্তত যে স্কুলে আপনারা লেখাপড়া করেছেন, সেখানে একটা মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম বা রুমের সামগ্রী উপহার দেবেন।
প্রধানমন্ত্রী ডিজিটাল সিডির মোড়ক উন্মোচন এবং ডিজিটাল কনটেন্ট-সংবলিত ‘ট্যাব’ এ আঙুলের চাপ দিয়ে ডিজিটাল প্রাইমারি শিক্ষার্থীদের জন্য ন্যাশনাল টেক্সট অ্যান্ড কারিকুলাম বোর্ড (এনসিটিবি) সংযোজিত ডিজিটাল কনটেন্ট শিক্ষাসামগ্রীর উদ্বোধন করেন। এ সময় সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইটও উদ্বোধন করেন তিনি।
প্রধানমন্ত্রী তাঁর বক্তৃতায় কোমলমতি শিশুদের ভালো ফলের আশায় পড়ার জন্য চাপ না দিয়ে পড়াশোনার প্রতি তাদের আগ্রহী করে তুলতে পরামর্শ দেন। তিনি ব্যক্তিগত জীবনের অভিজ্ঞতায় বলেন, আমি বা রেহানা কখনো আমাদের বাচ্চাদের পড়ার জন্য চাপ দিইনি। পড়ার জন্য চাপাচাপি করতে হবে কেন, তারা নিজ আগ্রহেই পড়বে।
শিক্ষার্থীদের প্রযুক্তিনির্ভর করে গড়ে তুলতে ডিজিটাল ক্লাসরুম করে দেয়া হচ্ছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ৬৩ হাজার ৬০১টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রত্যেকটিতে অন্তত একটি করে হলেও আমরা মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম করে দেব।
শেখ হাসিনা বলেন, আমরা সারা দেশে সব কিছু ডিজিটাল করে দিয়েছি। সব কিছু এখন সহজ হয়ে গেছে। তাই আপনারা যারা বিত্তশালী আছেন, অন্তত নিজেরা যে বিদ্যালয়ে পড়েছেন সেগুলো সাজিয়ে তুলুন। আপনার স্কুলকে আপনিই দিন।
বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্ট করে তিনি এবং তাঁর বোন শেখ রেহানা ব্যক্তিগত উদ্যোগে দরিদ্রদের শিক্ষা কার্যক্রমে পৃষ্ঠপোষকতার অংশ হিসেবে বৃত্তি প্রদান করে যাচ্ছেন উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, প্রাথমিক থেকে ডিগ্রি পর্যন্ত ১৩ হাজার শিক্ষার্থীকে এই ট্রাস্ট বৃত্তি-উপবৃত্তি প্রদান করছে। সর্বনিম্ন ৫০০ থেকে দুই হাজার টাকা পর্যন্ত এই বৃত্তি নিয়ে অনেক শিক্ষার্থীই পড়াশোনা করছে বলে তিনি জানান।


আরো সংবাদ

শিশু ক্যাম্পাস

বিশেষ সংখ্যা

img img img

আর্কাইভ